বিছনাকান্দি পর্যটনের পথে অবৈধ নৌকা ঘাটে দু-পক্ষের উত্তেজনা

প্রকাশিত: ৯:৩২ অপরাহ্ণ, জুন ১৮, ২০১৯

বিছনাকান্দি পর্যটনের পথে অবৈধ নৌকা ঘাটে দু-পক্ষের উত্তেজনা

বিছনাকান্দি পর্যটন কেন্দ্রে পর্যটকদের পৌঁছে দিতে পথে পথে তৈরী হয়েছে কয়েকটি অবৈধ নৌকা ঘাট। প্রত্যেক ঘাটে রয়েছে শতাধিক নৌকা। দেশে বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা পর্যটকদের নিরাপত্তার বিষয়টি নিয়ে যেন কারোই মাথা ব্যাথা নেই। পীরের বাজার সেতু পেরিয়ে প্রায় ৫শত গজ পরেই রয়েছে একটা পর্যটন নৌকা ঘাট। এখানে রয়েছে শতাধিক নৌকাও টেবিলে খাতা-কলম নিয়ে বসে রয়েছেন একজন ম্যানেজার পর্যটক আসার সাথে সাথে সিরিয়াল মেনে ছুটছে একেরপর এক নৌকা। এই ঘাটের নেতৃত্বে রয়েছেন রুস্তুমপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউপি সদস্য আশিকুর রহমান, তার ভাই আওলাদ হোসেন, রহিম উদ্দিন, ফারুক আহমদ, আশরাফুল, আবুল হোসেনসহ আরো অনেকে।

এ ব্যাপারে আওলাদ হোসেন বলেন পীরের বাজার পর্যটন নৌকা ঘাটের ইজারাদার রশিদ আহমদের কাছ থেকে আমরা ছয় আনা অংশে ঘাট পরিচালনা করেছি। সাবেক চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মুসলিম উদ্দিন ভূইয়া বলেন এই ঘাট নিয়ে দুটি পক্ষ মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছেন। ব্যাবস্থা না নিলে যে কোন সময় অনাকাঙ্ক্ষিত কোন ঘটনা ঘটার আশংকা রয়েছে। তিনি বলেন গত দুই দিন আগে এই স্থানে একটি পক্ষ রওশন আলীর ছেলে ধন মিয়ার উপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে গুরুতরভাবে আহত করে। ধন মিয়া অসহায় পরিবার সন্তান থাকায় কোন বিচার পায়নি। এ ব্যাপারে রুস্তমপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউপি সদস্য মো আশিকুর রহমান বলেন পীরের বাজার পর্যটন নৌকা ঘাটের ইজারাদার রশীদের কাছ থেকে সহযোগিতা করে পীরের বাজার সেতু সংলগ্ন উত্তর পাড়ে বঙ্গবন্ধু আদর্শ সংগঠনের নেতৃবৃন্দকে ঘাটের সহযোগিতা করেছি

এই ঘাটটি যার মালিকানাধীন জায়গায় তিনি রুস্তুমপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মুসলিম উদ্দিন ভূইয়া। মুসলিম উদ্দিন ভূইয়া এব্যাপারে বলেন আমার জমিতে যারা ঘাট বসিয়েছে আমি তাদেরকে কয়েকটি শর্ত দিয়েছি কিন্তু তারা শর্ত মানেনি। শর্তগুলোর মধ্যে রয়েছে মূল ইজারাদার হতে নোটারী পাবলিকের মাধ্যমে অংশের বর্ননা। আমি এই ঘাটের জমির মালিক হিসেবে চুক্তি সাক্ষর। এই ঘাটের লভ্যাংশ কয় ভাগে ভাগ হবে তা প্রকাশ্য রাখা। এই ঘাটটির পরিচালনার দায়িত্ব স্থানীয় বঙ্গবন্ধু আদর্শ সংগঠনের নেতৃবৃন্দের হাতে দেয়া। কিন্তু তারা কোনটি মানেনি। তাই অবৈধভাবে আমার জমিতে নৌকা ঘাট করতে দেয়া হবেনা। অবৈধ ভাবে এই নৌকা ঘাট পরিচালনা করে কোন ধরনের অপ্রতিকর ঘঠনা হলে এ দায় দায়িত্ব কে নিবে।

Sharing is caring!

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..