প্রচ্ছদ

আসছে কমলা তার মেয়েকে দিয়ে কি ভাবে ছিনতাই করাচ্ছে-----
মামলার ১২ দিনেও গ্রেফতার হয়নি সিলেটের বহুরুপী কমলা

১২ জুন ২০১৯, ১৬:০৪

স্টাফ রিপোর্টার ::

Sharing is caring!

সিলেট নগরীতে নারী পকেটমারদের একটি শক্তিশালী চক্র রয়েছে। আর এই চক্রের নেতৃত্বে ছিলেন সিলেটের আলোচিত ছিনতাইকারী ও অর্ধশত মামলার আসামী কমলা বেগম ফাতেমা। বর্তমানে কমলাসহ আরো সাতজনের বিরুদ্ধে কোতোয়ালী মডেল থানায় একটা মামলা দায়ের করা হয়। যার মামলা নম্বর(০৩/২২৯ তারিখ ০১.০৬.১৯)।

কিন্ত মামলা হওয়ার পরও কমলা বাসায় থাকছে ঈদের আগে ও পরে নগরীর বিভিন্ন মাকেট ও বাসায় এবং অফিসে যাচ্ছে। পুলিশের সোর্স শাহেদের মাধ্যমে যোগাযোগ রাখছে পুলিশের সাথে।

যার ফলে মামলার ১২ দিন অতিবাহিত হলেও গ্রেফতার সিলেটের আলোচিত নারী ছিনতাইকারী ও অর্ধশত মামলার আসামী বহুরুপী কমলা।

সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার রাণীগঞ্জের নাসির উদ্দিনের স্ত্রী কমলা বেগম ফাতেমা। এয়ারপোর্ট থানাধীন এলাকা উমদারপাড়ায় কমলার পিত্রালয়। বর্তমানে সিলেট নগরীর কানিশাইলে তার নিজস্ব বাসায় বসবাস করে।

সিলেট নগরীতে দীর্ঘদিন থেকে নারীর পকেটমাররা বেপোরোয়া হয়ে ছিনতাই করে যাচ্ছে। আর এই সকল ছিনতাইকারীদের সেল্টারদাতা কমলা। কমলার এই শক্তিশালী ছিনতাই চক্র তারা সকল ধরণের অপরাধের সাথে জড়িত। সারা বছরই এদের তৎপরতা থাকলেও ঈদ, পূজা কিংবা পহেলা বৈশাখের উৎসবে এরা সবচেয়ে বেশি সক্রিয় হয়ে ওঠে। মানুষের ভিড়ে মিশে কৌশলে হাতিয়ে নেয় টাকা, মোবাইল ফোন কিংবা মূল্যবান অন্য কোনোও জিনিস। নারী হওয়ায় এদের দিকে সন্দেহের তীর থাকে না, যার ফলে এরা সহজেই অন্য নারীদের কাছাকাছি যেতে পারে।

কমলার পক্ষে কাজ করছে সিলেটের কিছু সংখ্যক অসাধু পুলিশ ও সাংবাদিক। মাস শেষে পাচ্ছে বড় অংকের টাকা। দেখা গেছে কমলার বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ হওয়ার সাথে সাথে তদবীর শুরু করেন ওই নামধারী সাংবাদিক ও অসাধু পুলিশ। তাদের নেতৃত্বেই কমলা বর্তমানে নগরীর কানিশাইল এলাকায় কোটি টাকার অবৈধ সম্পদের মালিক।

সজলের মাধ্যমে এসএমপির কোতোয়ালি পুলিশ ম্যানেজ হয়। মাঝে মধ্যে জনতার হাতে এই চক্রের সদস্যরা আটক হলেও বেশিরভাগ সময়ই থানা থেকে তাদেরকে ছেড়ে দেয়া হয় বলে অভিযোগ রয়েছে।

  •  
  •  
  •  

আর্কাইভ

shares