আপত্তিকর অবস্থায় ধরা পড়লেন শিক্ষক-শিক্ষিকা

প্রকাশিত: ৩:৫৫ অপরাহ্ণ, জুন ২, ২০১৯

আপত্তিকর অবস্থায় ধরা পড়লেন শিক্ষক-শিক্ষিকা

আপত্তিকর অবস্থায় এই সপ্তাহে শিক্ষক-শিক্ষিকারা যেন হ্যাটট্রিক করবেন। একের পর এক ধর্ষণ, হোটেল, বিনোদনের নামে নোংরামিতে পুলিশ, জনগণ, আইনের বিভিন্ন প্রশাসনের কাছে ধরা পড়ছে মহান পেশার “জাতি গঠণের কারখানা” খ্যাত শিক্ষক-শিক্ষিকারা।

চাঁদপুরের কচুয়ায় প্রাইমারি স্কুলের প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে তার সহকর্মী এক শিক্ষিকার অন্তরঙ্গ ছবি ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে পড়েছে। সম্প্রতি কচুয়া শিক্ষক সমিতির মার্কেটের স্টুডিও মিনতির পরিচালক সুমন রায়ের ফেসবুক আইডি থেকে স্ট্যাটাস দেয়ারসঙ্গে সঙ্গে ছবিটি ভাইরাল হয় সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, কচুয়া উপজেলার শ্রীরামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. জাহাঙ্গীর ও তালতলী সপ্রাবির এক সহকারী শিক্ষিকার অন্তরঙ্গ ও আপত্তিকর একটি ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। এ নিয়ে এলাকায় নানা গুঞ্জনসহ আলোচনার ঝড় উঠে।

স্থানীয়া জানান, এক সন্তানের জননী ওই শিক্ষিকা বর্তমানে আলীগঞ্জ পিটিআই’তে প্রশিক্ষণে রয়েছেন। শিক্ষক জাহাঙ্গীর বিভিন্ন সময় তাকে ফোন করে ডেকে নিয়ে বিভিন্ন কাজের দায়িত্ব দিলে তিনি তা করে দিতেন। এভাবেই তাদের মধ্যে অন্তরঙ্গ সম্পর্ক গড়ে উঠে। ওই শিক্ষিকা বলেন, গত ৬ই মে শিক্ষক জাহাঙ্গীর আমাকে মুঠোফোনে হাজীগঞ্জের একটি বাসায় যেতে বলে। পিটিআই’র ছুটি হওয়ার পর আমি সেখানে যাই। ওই বাসায় গেলে ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া ছবিটি তোলা হয়।

এদিকে এক সন্তানের জনক কচুয়া পৌরসভাধীন ধামালুয়া গ্রামের অধিবাসী মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, তার সাথে আমার কর্মক্ষেত্রে সাধারণ পরিচয় ছাড়া অন্য কোনো সম্পর্ক নেই। ভাইরাল হওয়া ছবি সম্পর্কে তিনি কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি।

Sharing is caring!

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..