গোলাপগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস স্টেশন কবে চালু হবে? কাজ শেষ হওয়ার আগেই উদ্বোধন

প্রকাশিত: ৩:২৭ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০১৯

গোলাপগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস স্টেশন কবে চালু হবে? কাজ শেষ হওয়ার আগেই উদ্বোধন

ফাহাদ হোসাইন গোলাপগঞ্জ :: ১৮ মার্চ ২০১৮। এ দিন সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলাবাসীর জন্য একটি মর্মস্পর্শি দিন। ওইদিন রাতে বজ্রপাত থেকে উপজেলার লক্ষনাবন্দস্থ ক্লাব বাজারে একটি কলোনীর পাশে থাকা গ্যাস রাইজারে অগ্নিকান্ড থেকে মুহুর্তেই আগুনের লেলিহান শিখা পৌঁছায় কলোনিতে। এ অগ্নিকান্ড ঘটনাস্থলেই নিহত হন ৫জন। এর পর সিলেটের ওসমানী হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎধিন থাকা অবস্থায় মারা জান আরো ১জন। সব মিলিয়ে এ দিনের অগ্নিকান্ড নিহতের সংখ্যা দাঁড়ায় মোট ৬ জনে। বাদ পড়েনি মায়ের গর্ভে থাকা শিশুও। আগুনের তাপে অত্মসন্তা মায়ের পেট ফেটে ভুমিষ্ট হয়েছিলো মৃত এক শিশু। সেদিনের এ ঘটনায় উপজেলর বাতাস ভারি হয়েছিলো স্বজনদের কান্নায়। এ আগুনের সূত্রপাত ভোর রাতে হলেও প্রায় ৫০ মিনিট পর ফায়ার সার্ভিস ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছালেও এর আগেই আগুননে পুড়ে ছাই হয় সব।

এ ঘটনার ক্ষত মুছতে না মুছতেই উপজেলায় ঘটে আরো একটি অগ্নিকান্ড। একই সালের ৯ মার্চ উপজেলার ঢাকাদক্ষিন-বিয়ানীবাজার বাইপাস সড়কে একটি তেলবাহী লেগুনা গাড়িতে আগুন লেগে মুহুর্তেই ভুস্মীভ‚ত হয় গাড়িটি। খবর পেয়ে সিলেট ও বিয়ানীবাজারের ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌছালেও এর আগেই পুড়ে ছাই হয় লেগুনাসহ প্রায় ১২ লক্ষ টাকার মালামাল। অল্পের জন্য রক্ষা পান গাড়ির চালক ও চালকের সহযোগি।

কেবল এসব ঘটনাই নইয় ওই উপজেলার বিভিন্ন জায়গায় ছোটখাট অগ্নিকান্ডর ঘটনা ঘটলেই সিলেট থেকে ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি এসে পৌছানোর আগেই ঘটছে লক্ষ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি। মোট ১২ টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভা নিয়ে গঠিত এ উপজেলায় প্রায় সাড়ে তিন লক্ষ মানুষের জনবসতী। এছাড়াও প্রবাসী অধ্যুষিত এ উপজেলায় কুশিয়ারা তিরবর্তী অঞ্চল নিয়ে গঠিত বাদেপাশা, বুধবারীবাজার, শরীফগঞ্জ এ ৩ ইউনিয়ন উপজেলা সদর থেকে প্রায় ২৫ কিলোমিটার দ‚রে এবং যোগাযোগ ব্যবস্থা নাজুক হওয়ায় এসব ইউনিয়নে যাতায়াতে উপজেলা সদর থেকেই লাগে প্রায় ১ ঘণ্টা সময়। তাই এসব অঞ্চলে কোন অগ্নিকান্ডর ঘটনা ঘটলেও ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি পৌছানোর আগেই সব কিছু পুড়ে ছাই হয়ে যায়। তাই দীর্ঘ দিন থেকে এ উপজেলালায় একটি ফায়ার স্টেশনের দাবী ছলো উপজেলাবাসীর। উপজেলাবাসীর দাবীর প্রেক্ষিতে সাবেক শিক্ষামন্ত্রী ও বর্তমান সিলেট-৬ আসনের সংসদ সদস্য নুরুল ইসলাম নাহীদ এ উপজেলায় একটি ফায়ার ষ্টেশন চালু করার উদ্যোগ নিয়ে গত ২০১৭ সালের মার্চ মাসে উপজেলার দাড়িপাতনস্থ সিলেট-জকিগঞ্জ সড়কের পাশে একটি ফায়ার ষ্টেশন নির্মান কাজ শুরু করেন। পরবর্তীতে এ ফায়ার স্টেশনের উদ্বোধন হয় ২০১৮ সালের ১৯ অক্টোবর। সে সময় সাবেক শিক্ষামন্ত্রী ও বর্তমান এমপি নুরুল ইসলাম নাহীদ প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে ১ কোটি ৯৫ লক্ষ ৮২ হাজার টাকা ব্যয়ে নির্মিত এ ফায়ার স্টেশনের উদ্বোধন করেন। কিন্তু উদ্বোধনের পর ৪ মাস অতিবাহিত হলেও এখনো এ স্টেশনের কার্যক্রম শুরু না হওয়ায় অনেকটা ক্ষোদ্ধ গোলাপগঞ্জের নাগরীক সমাজ।নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক উপজেলার একাধিক বাসিন্দা অভিযগ করছেন, ‘সকল কাজ শেষ না করে নির্বাচনে জনগনের আই ওয়াশ করতেই তড়িগড়ি করে উদ্বোধন করা হয়েছে। কিন্তু প্রকৃত পক্ষে এখনো কাজই শেষ হয়নি। এমতাবস্থায় কবে ফায়ার সার্ভিসের এ স্টেশনের কার্যক্রম শুরু হবে এটিই এখন জানতে চান উপজেলাবসী। এদিকে উদ্বোধনের পর এ স্টেশনে ফায়ার সার্ভিস তাদের কার্যক্রম শুরু না করলেও উপজেলায় থেমে নেই অগ্নিকান্ড। প্রতিনিয়তই ঘটছে উপজেলা সদরসহ বিভিন্ন ইউনিয়নে অগ্নিকান্ড।

গত ২৫ জানুয়ারি গোলাপগঞ্জ বাজারের বিসমিলাহ স্নেকসবারে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরনে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডর ঘটনা ঘটে। এ অগ্নিকান্ড সিলেটের আলমপুরস্থ ফায়ার স্টেশন থেকে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছাতে লাগে প্রায় ২০ মিনিট। কিন্তু এর আগেই উপস্থিত জনতা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার কারণে বড় ধরণে দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা হয়। একই ভাবে গত ৩০ জানুয়ারি উপজেলা সদর থেকে প্রায় ১৫ কিলোমিটার দ‚রে ঢাকাদক্ষিণ ইউনিয়নস্থ সুনামপুর গ্রামে গোয়াল ঘরে আগুন লেগে প্রায় লক্ষাধিক টাকার ক্ষয় ক্ষতি হয়। কিন্তু এ ঘটনায় ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট সিলেট থেকে ঢাকাদক্ষিন বাজারে পৌঁছার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার খবর পান। পরবর্তীতে ফায়ার সার্ভিসের এ ইউনিট ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে চলে যান।

প্রতিণিয়ত উপজেলায় অগ্নিকান্ডর ঘটনা ঘটলেও ফায়ার সার্ভিসের গোলাপগঞ্জ উপজেলাস্থ স্টেশনটির কার্যক্রম শুরু না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করছেন উপজেলার সচেতন মহল। একই সাথে মানববন্ধনের উদ্যোগও নিচ্ছে গণদাবী পরিষদ।

তবে এর এখনো কাজ বাকি আছে এছাড়াও লোকবল সংকটের কারণে গোলাপগঞ্জের এ স্টেশনে কার্যক্রম শুরু করা যাচ্ছে না বলে জানিয়েছেন সিলেট বিভাগের ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের ভারপ্রাপ্ত উপ-বিভাগীয় পরিচালক তনয় বিশ্বাস।

এদিকে কাজ শেষ না হওয়ার বিষয়টিকে আংশিক সত্য বলে জানালেও ফায়ার সার্ভিসের লোকবল সংকট আর বিদ্যুৎ বিভাগের অসহযোগিতাকেই ম‚লত দায়ী করছেন সিলেটের গণপ‚র্ত-১ এর উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী প্রশান্ত চৌধুরী। তিনি বলেন, যে কাজ বাকি আছে তাতে ফায়ার সার্ভিসের কার্যক্রমের কোন অসুবিধা হবে না। তবে ফায়ার সার্ভিসের লোকবল না থায়া তারাই কার্যক্রম শুরু করতে পারছে না। এটি তাদের দ‚র্বলতা। এছাড়াও এখনো বিদ্যুৎ বিভাগ থেকে বিদ্যুৎ সংযোগ না দেয়ায় কাজ শেষ করা যাচ্ছে না বলে জানান তিনি।

অপরদিকে গণপুর্ত বিভাগের এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন গোলাপগঞ্জ উপজেলা বিদ্যুৎ অফিসের ডিজিএম মামুনুর রশীদ। তিনি বলেন, আমাদের কোন গাফিলতি নেই। আমরা বিদ্যুৎ দিতে প্রস্তুত। তাছাড়া ফায়ার সার্ভিসের অফিসের মতো একটি জায়গায় বিদ্যুৎ দিতে গাফিলতির প্রশ্নই আসে না জানিয়ে তিনি বলেন, গণপুর্ত বিভাগ থেকে নিয়ম অনুযায়ী যেসব বিধিবিধান অনুসরণ করার কথা তারা তা করছে না। এমতাবস্থায় আমরা একটি চিঠি দিয়েও তাদের জানিয়েছি আমাদের নিয়মগুলো। কিন্তু তারাই কোন গুরুত্ব দিচ্ছে না। তারা নিয়ম মেনে আবেদন করলে সর্বোচ্চ ১০ মিনিটের ভিতর বিদ্যুৎ সংযোগ করা হবে বলেও জানান বিদ্যুৎ অফিসের ডিজিএম।

এদিকে কাজ শেষ না করে উদ্বোধন করাকে নির্বাচনের আগে লোক দেখানো উন্নয়ন বলে মন্তব্য করছেন গোলাপগঞ্জ উপজেলা গণদাবী পরিষদের সভাপতি ডা. হাবিবুর রহমান। তিনি বলেন, গণদাবী পরিষদ উপজেলা কমিটির পক্ষ থেকে গত মিটিংএ ফায়ার সার্ভিসের ব্যাপারে আলোচনা হয়েছে। আমরা কিছুদিনের ভিতর গোলাপগঞ্জের ফায়ার সার্ভিসের কার্যক্রম শুরুর জন্য মানববন্ধন কর্মস‚চি করবো। কাজ শেষ না করে এর উদ্বোধনের ব্যাপারে তিনি বলেন, এটি নির্বাচনের আগে লোক দেখানো উন্নয়ন। এটি একটি ‘আই ওয়াশ’।

তবে কিছুটা আশার বাণীও শোনালেন সিলেট বিভাগের ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের ভারপ্রাপ্ত উপ-পরিচালক তনয় সরকার। তিনি বলেন, ফায়ার সার্ভিসের লোকজন ট্রেনিংয়ে আছেন। তারা আসলেই পরে গণপ‚র্ত বিভাগ থেকে কাজ শেষ করা হলে ১০ দিনের ভিতরেই গোলাপগঞ্জ উপজেলার এ স্টেশনের কার্যক্রম শুরু করা সম্ভব।

এদিকে কাজের ক্ষেত্রে গণপ‚র্ত বিভাগের কোন গাফিলতি না থাকলেও ইঞ্জিনিয়ারের গাফিলতির কারণে অল্প কাজ বাকি থাকার কথা স্বীকার করে গণপ‚র্ত উপ-বিভাগ-১ এর বিভাগীয় প্রকৌশলী (সিভিল) বলেন, ইঞ্জিনিয়ার এখণ কিছু কাজ বাকি রেখেছে। এছাড়াও মাটি ভরাট করার জন্য যে মাটি আনা হয়েছিলো এর কিছু অংশ বিক্রি করে দিয়েছেন ইঞ্জিনিয়ার। তবে এখন ইঞ্জিনিয়ারকে চাপ দেয়া হয়েছে। দ্রæত সময়ের মধ্যেই কাজ শেষ করা হবে। কাজ শেষ হওয়ার আগেই উদ্বোধন এমন প্রসঙ্গে তিনি কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি।

Sharing is caring!

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

February 2019
S S M T W T F
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
232425262728  

সর্বশেষ খবর

………………………..