ঘুমের ওষুধ খাইয়ে শ্যালিকাকে ধর্ষণ,ধর্ষক দুলাভাই গ্রেফতার

প্রকাশিত: 8:00 PM, February 20, 2019

ঘুমের ওষুধ খাইয়ে শ্যালিকাকে ধর্ষণ,ধর্ষক দুলাভাই গ্রেফতার

Sharing is caring!

ক্রাইম সিলেট ডেস্ক : টাঙ্গাইলের সখিপুরে দুলাভাই আমিনুর বাড়ির সকলকে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে ৮ম শ্রেণী পড়ুয়া শ্যালিকা(১২)কে ধর্ষণ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে । সখিপুর থানা পুলিশ ধর্ষক দুলাভাই আমিনুর রহমানকে গ্রেফতার করেছে। এক বন্ধুকে সঙ্গে করে মিষ্টি ও জুস নিয়ে চাচাশ্বশুরের বাড়িতে বেড়াতে যান আমিনুর রহমান (২৫)। সেখানে যাওয়ার আগেই তাঁরা ঘুমের ওষুধ গুঁড়ো করে মিশিয়ে দেয় মিষ্টি ও জুসের সঙ্গে। তা খেয়ে সবাই ঘুমিয়ে পড়লে ওই সুযোগে বন্ধুকে নিয়ে অষ্টম শ্রেণী পড়ুয়া শ্যালিকাকে ধর্ষণ করে সে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত আমিনুরকে আজ বুধবার(২০.০২.১৯ইং) গ্রেফতার করেছে সখিপুর থানা পুলিশ।
ঘটনাটি ঘটেছে গত শনিবার রাতে। ধর্ষিতার বাবা বাদী হয়ে আজ বুধবার সকালে সখিপুর থানায় দুজনকে আসামি করে ধর্ষণের মামলা করেন। থানা পুলিশ বিকেলেই প্রধান আসামি আমিনুর রহমানকে গ্রেফতার করেছে। আমিনুরের বন্ধুকে গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।
মেয়েটি বর্তমানে টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) চিকিৎসাধীন রয়েছে। গ্রেফতাকৃত আমিনুর একজন ট্রাক ড্রাইভার।
মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, আমিনুর রহমান কিছুদিন আগে একটি নতুন ট্রাক ক্রয় করে। নতুন গাড়ি কেনা উপলক্ষে সে চাচা শ্বশুরের বাড়িতে মিষ্টি ও জুস নিয়ে যায়। ঘুমের ওষুধ মেশানো সেই জুস ও মিষ্টি খেয়ে এক পর্যায়ে বাড়ির সবাই অচেতন হয়ে পড়লে আমিনুর ও তাঁর বন্ধু ওই কিশোরীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে।
মামলার বাদী বলেন, ঘটনার পরের দিন রোববার সকালে একে একে সবার জ্ঞান ফিরে । একপর্যায়ে প্রতিবেশীরা ওই বাড়ির চার সদস্যকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সোমবার সকালে চিকিৎসক সবাইকে ছেড়ে দিলেও ওই মেয়েটিকে উন্নত চিকিৎসার জন্য টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান।
সখিপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) লুৎফুল কবির বলেন, মেয়েটির শারীরিক অবস্থার উন্নতি হচ্ছে বলে চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন। আমিনুরকে আগামীকাল বৃহস্পতিবার টাঙ্গাইল আদালতে পাঠানো হবে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

February 2019
S S M T W T F
« Jan   Mar »
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
232425262728  

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares