সিলেট-৪ আসনে আওয়ামী লীগের টার্গেট হ্যাট্রিক বিএনপি চায় পুনরুদ্ধার

প্রকাশিত: ২:৫৩ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৮

সিলেট-৪ আসনে আওয়ামী লীগের টার্গেট হ্যাট্রিক বিএনপি চায় পুনরুদ্ধার

গোয়াইনঘাট প্রতিনিধি :: সিলেটের সীমান্তবর্তী গোয়াইনঘাট-জৈন্তাপুর ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা নিয়ে গঠিত সিলেট-৪ আসন। এ আসনে মোট ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৫৮ হাজার ৪৭৯ জন। তাদের মধ্যে পুরুষ ভোটার এক লাখ ৮৪ হাজার ৬২ জন এবং নারী ভোটার রয়েছেন এক লাখ ৭৪ হাজার ৪১৭ জন।

খনিজ সম্পদ তেল-গ্যাস আর বালু-পাথরের জনপদ এই তিন উপজেলার আসনটি পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে ও দেশ বিদেশে রয়েছে ব্যাপক পরিচিতি। দেশের সবচেয়ে বড় দু’টি পাথর কোয়ারিও রয়েছে এই নির্বাচনী এলাকাতেই। ফলে এই আসনের গুরুত্ব সিলেটের অন্য আসনগুলোর থেকে একটু আলাদা।

এবারের আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত দলীয় প্রার্থী হিসেবে পাঁচ বারের নির্বাচিত সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ইমরান আহমদের উপর পূণরায় আস্থা রাখলো দলটি। তিনি এর আগে ১৯৮৬, ১৯৯১, ১৯৯৬, ২০০৮ এবং সর্বশেষ ২০১৪ সালে এমপি নির্বাচিত হয়ে পঞ্চমবারের মতো সংসদ সদস্যের দায়িত্ব পালন করেছেন। তবে, এবার এ আসন থেকে তিনি পূণরায় নির্বাচিত হয়ে দলের জয়ে হ্যাট্রিক পূর্ণ করবেন বলে আশাবাদী দলের নীতিনির্ধাকরা।

এদিকে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) থেকে কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য দিলদার হোসেন সেলিম (ধানের শীষ) প্রতীক নিয়ে জয় লাভ করে এ আসনটি পূণরুদ্ধার করতে মরিয়া হয়ে মাঠে নেমেছেন।

তিনি দলীয় টিকেট পেয়ে ২০০১ সালে সিলেট-৪ আসনে নির্বাচিত হয়ে সংসদ সদস্যের দায়িত্ব পালন করেছিলেন। এর আগে ১৯৯৬ সালে তিনি (স্বতন্ত্র) ও ২০০৮ দলীয় মনোনয়ন পেয়ে নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বর্তমান সংসদ সদস্য ইমরান আহমদ’র সাথে প্রতিযোগিতা করে তিনি বিপুল ভোটে পরাজিত হন।

তবে তাদের সাথে ভোট যুদ্ধে পাল্লা দিতে নির্বাচনী মাঠে নামবেন বাংলাদেশ জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী ও দলটির প্রেসিডিয়াম সদস্য এ টি ইউ তাজ রহমান।

সাধারণ ভোটাররা মনে করছেন, বর্তমান সাংসদ ইমরান আহমদ নৌকা প্রতীক ও সাবেক সাংসদ দিলদার হোসেন সেলিম ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে মাঠে থাকায় তীব্র প্রতীদ্ব›দ্বীতাপূর্ণ হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে।

নির্বাচনে সৎ ও যোগ্য প্রার্থীকেই বেছে নেবো। যে এমপি এলাকার উন্নয়ন, রাস্তাঘাট ও ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসার বাড়াতে পারবে তাকেই ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবেন বলে জানালেন কয়েকজন ভোটার।

এ আসনে আওয়ামী লীগের সমর্থক কয়েকজন নেতা জানান, আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে ব্যাপক উন্নয়ন সাধিত হয়েছে। জনগণ আবারও আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় দেখতে চায়। বিভিন্ন উন্নয়নের চিত্র লক্ষ করেই আবারও ভোটাররা আমাদের নির্বাচিত করবেন। ইমরানকে দলীয় সভানেত্রী যতবারই মূল্যায়ণ করছেন ততবারই তিনি নেত্রীকে আস্থার প্রতিদান দিয়েছেন। আশা করি, এবারও আমরা এই আসনে আওয়ামী লীগের বিজয় নিশ্চিত করে নেšী¿কে পূণরায় এই আস্থার প্রতিদান দেবো।

সাবেক সংসদ সদস্য দিলদার হোসেন সেলিম অনুসারী কয়েকজন বিএনপি নেতা বলেন, দিলদার হোসেন সেলিম জনগণের কাছে অনেক জনপ্রিয়। তিনি দলের জন্য অনেক শ্রম দিয়েছেন। তাছাড়া আসনের তিন উপজেলাসহ সিলেটের বিভিন্ন এলাকায় দলকে সু-সংগঠিত করতে গিয়ে তাকে অনেক ত্যাগ-তিতিক্ষা ও মামলার ঘানি টানতে হয়েছে। তাপরও প্রয়াত সাবেক রাষ্ট্রনায়ক জিয়াউর রহমানের রাজনৈতিক আর্দশ থেকে বিচ্যুত হননি। যদি এ আসন থেকে সেলিম পূণরায় নির্বাচিত হয় তাহলে এলাকায় উন্নয়নে তিনি ব্যাপক ভূমিকা রাখবেন।

Sharing is caring!

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..