সুনামগঞ্জের আ.লীগের বর্তমান সাংসদরাই মনোনয়ন পেলেন

প্রকাশিত: ১০:২২ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৫, ২০১৮

সুনামগঞ্জের আ.লীগের বর্তমান সাংসদরাই মনোনয়ন পেলেন

Sharing is caring!

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি :: সুনামগঞ্জের পাঁচটি আসনের যে চারটিতে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী ঘোষণা করেছে তার সবগুলোতেই বর্তমান সংসদ সদস্যরা বহাল রয়েছেন।

প্রার্থী পরিবর্তনের ব্যাপক দাবি থাকলেও বিষয়টি আমলে নেয়নি হাইকমান্ড। এবারো সদর আসনটি জোটের শরিক জাতীয় পার্টিকে ছাড় দিতে দেওয়া হচ্ছে। যে কারণে এই আসনে দলীয় প্রার্থী ঘোষণা করা হয়নি।

প্রসঙ্গত, রবিবার দীর্ঘ জল্পনা ও অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে ২৩০ আসনে দলীয় প্রার্থী ঘোষণা করে ক্ষমতাসী দল আওয়ামী লীগ। যে তালিকায় রয়েছে সুনামগঞ্জ চারটি আসন।

সুনামগগঞ্জ-১ আসনে টানা তৃতীয়বারের মতো নৌকা পেয়েছেন বর্তমান সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতন। তাঁর বিপরীতে নিজ দলের এক ডজনেরও বেশি প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছিলেন। রতনকে বাদ দিয়ে যে কাউকে মনোনয়ন দেওয়ার দাবি ছিল তাদের। রতনের মনোনয়ন পাওয়ার পর অপরাপর মনোনয়ন প্রত্যাশীদের তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

সুনামগঞ্জ-২ আসনে দেড় বছর পূর্বে উপ-নির্বাচনে বিজয়ী প্রয়াত সুরঞ্জিত সেন পত্নী জয়া সেনগুপ্তা দ্বিতীয় বারের মতো আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন। তার বিপরীতে এখানে ১০ জনের মতো মনোনয়ন প্রত্যাশী একাট্টা ছিলেন। এখন পর্যন্ত কোন প্রতিক্রিয়া জানাননি তারা।

আলোচিত সুনামগঞ্জ-৩ আসনে এ নিয়ে তৃতীয়বার আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান। তাঁর বিপরীতে ছিলেন হেভিওয়েট মনোনয়ন প্রত্যাশী প্রয়াত জাতীয় নেতা আব্দুস সামাদ আজাদ পুত্র আজিজুস সামাদ ডন। ২০১৪ সালের নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করে সামান্য ভোটের ব্যবধানে হেরে ছিলেন মান্নানের কাছে।

দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে ডন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে যোগ দিতে যাচ্ছেন- সম্প্রতি এমন গুঞ্জন বেশ জোরেশুরে ওঠে। পরে অবশ্য ডন এমন গুঞ্জনকে গুজব বলে দাবি করেন, দল ছেড়ে আর কোথাও যাচ্ছেন না বলে ঘোষণা দেন। মনোনয়ন না পেয়ে শেষ মুহূর্তে কী করবেন তিনি- সে দিকে তাকিয়ে আছেন তার সমর্থকরা।

এদিকে, সুনামগঞ্জ-৪ আসনে এবারও কোন প্রার্থী দেয়নি ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। ২০১৪ সালে এ আসনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন জাতীয় পার্টির অ্যাডভোকেট পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ। জাপাকে হটিয়ে দলীয় টিকেটে এমপি হতে এবারো জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ চার মনোনয়ন প্রত্যাশী তদবির করেন। কিন্তু  শেষ মুহূর্তে জাপার জন্য আসনটি রেখে দিয়ে অবশেষে এই আসনে কোন প্রার্থী দেয়নি আওয়ামী লীগ। আসটিতে এবারো জাতীয় পার্টির বর্তমান এমপি পীর মিসবাহ মহাজোটের প্রার্থী হচ্ছেন- এটি এখনও ঘোষণার অপেক্ষা মাত্র বলে জানা গেছে।

এদিকে, সুনামগঞ্জ-৫ আসনে চতুর্থবারের মতো নৌকার টিকেট পেয়েছেন বর্তমান সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক। তিন বারের এই এমপির বিপরীতে আসনটিতে দলীয় মনোনয়ন নিয়ে নির্বাচন করতে চেয়েছিলেন জেলা আওয়ামী লীগ নেতা শামীম আহমদ চৌধুরী।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares