বাদী হয়ে আদালতে এসে সাজা মাথায় নিয়ে কারাগারে! জকিগঞ্জের আলাউদ্দিন মেম্বার

প্রকাশিত: ১:২৫ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ১০, ২০১৮

বাদী হয়ে আদালতে এসে সাজা মাথায় নিয়ে কারাগারে! জকিগঞ্জের আলাউদ্দিন মেম্বার

ক্রাইম সিলেট ডেস্ক :: জকিগঞ্জের আলাউদ্দিন মেম্বার আদালতে এসেছিলেন মামলার বাদী হয়ে। বাদী হয়ে এসেও আর বাড়িতে ফিরত যেতে পারেননি। সাজা মাথায় নিয়ে তার ঠাই হয়েছে কারাগারে। আজ সোমবার চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে সিলেটের আদালতপাড়ায়। আদালত সূত্র জানা গেছে, সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলার বারঠাকুরী ইউনিয়নের সাবেক ইউপি সদস্য, রাড়ীগ্রামের মৃত মছব্বির আলীর ছেলে এস.এম আলা উদ্দিন তিন মাসের সাজাপ্রাপ্ত আসামী। মহানগর দায়রা জজ আদালতে একটি চেক প্রতারণার মামলায় তার তিন মাসের সাজার পাশাপাশি ৯৫ লাখ টাকা জরিমানা হয়েছে। সাজা প্রাপ্ত পলাতক আসামী হয়েও আলাউদ্দিন বীরদর্পে ঘুরে বেড়াচ্ছিলেন। উল্টো তিনি প্রতিপক্ষদের উপর মামলা মোকদ্দমা করছেন। তেমনি একটি মামলার বাদী এস.এম আলা উদ্দিন। অতিরিক্ত চীফ মেট্রোপলিটন আদালতে দায়েরকৃত মামলাটিতে তিনি হাজিরা দিতে এসেছিলেন সোমবার। এরপর আদালতে তিনি সাজাপ্রাপ্ত আসামী বিষয়টি প্রকাশ পেলে বিজ্ঞ বিচারক তাকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হেফাজতে পাঠান। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিলেট ল’ কলেজের অধ্যক্ষ এডভোকেট সৈয়দ মহসিন আহমদ। জানা যায়, সদর সি.আর. ৫২৮/১৮ ইং নাম্বার মামলার বাদী আলা উদ্দিন। জকিগঞ্জের ছালেক আহমদ, আব্দুছ সালামসহ আরো কয়েকজনের বিরুদ্ধে তিনি মামলাটি দায়ের করেন। এই মামলায় তিনি সোমবার আদালতে হাজিরা দিতে আসেন। তার পক্ষে ছিলেন এডভোকেট লালা। ছালেক আহমদের আইনজীবী এডভোকেট সৈয়দ মহসিন আহমদ আদালতকে জানান, এস.এম. আলা উদ্দিন সাজা প্রাপ্ত আসামী। তিনি সাজাপ্রাপ্ত আসামী হয়েও আদালতে আত্মসমর্পণ করেননি। পলাতক থেকে উল্টো মামলা-মোকদ্দমা দায়ের করছেন। তিনি পলাতক সাজা প্রাপ্ত পলাতক আসামী হওয়াতেই আদালতের বিজ্ঞ বিচারক তাঁকে আটকের নির্দেশ দেন। কারাগারে ঠাই হওয়া এস.এম আলা উদ্দিন মহানগর দায়রা জজ আদালতের দায়রা ৭৭৪/১৭ ইং নাম্বার মামলায় তিন মাসের সাজা পেয়েছেন। জকিগঞ্জ থানা কর্তৃপক্ষের কাছে আদালতের ওয়ারেন্ট থাকলেও থানার ওসি হাবিবুর রহমান ওয়ারেন্ট তামিল করেননি। এডভোকেট সৈয়দ মহসিন আহমদ বলেন- আসামী সাজাপ্রাপ্ত ছিলেন। তিনি আইনের দৃষ্টিত পলাতক। পলাতক থেকেও তিনি মামলা মোকদ্দমা করছেন। আদালতের নজরে বিষয়টি এলে বিজ্ঞ বিচারক তাঁকে আটক করে কারাগারে প্রেরণ করেন।

Sharing is caring!

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..