নগরীর কাজলশাহ এলাকায় যাকাতের কাপড় নিয়ে ৩ জনকে মারধর

প্রকাশিত: ৪:২৮ অপরাহ্ণ, জুন ১৩, ২০১৮

নগরীর কাজলশাহ এলাকায় যাকাতের কাপড় নিয়ে ৩ জনকে মারধর

Sharing is caring!

ক্রাইম সিলেট ডেস্ক : নগরীর পশ্চিম কাজলশাহ এলাকায় যাকাতের কাপড় বিতরণ নিয়ে সৃষ্ট ঝামেলাকে কেন্দ্র করে একটি পরিবারের উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। হামলার স্বীকার হন পশ্চিম কাজলশাহ এলাকার মৃত মখলিছ মিয়ার পরিবারের সদস্যরা। সোমবার বিকাল ৪টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

মৃত মখলিছ মিয়ার স্ত্রী জ্যোৎস্না বেগম জানান- সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ৩নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এস এম আবজাদ হোসেন আমজাদের পক্ষ থেকে সোমবার বিকালে পশ্চিম কাজলশাহ এলাকার পীর মঞ্জিলে টুকন অনুযায়ী যাকাতের কাপড় বিতরণ করা হয়। জ্যোৎস্না বেগম তার দুটি টুকন দিয়ে তার মেয়ে মিথিলা আক্তারকে সেখানে কাপড় আনতে পাঠান। টুকন দিয়ে কাপড় নিয়ে মিথিলা পীর মঞ্জিল থেকে বাসায় ফিরে আসে। কাপড় নিয়ে বাসায় আসার কিছুক্ষণ পর অজ্ঞাত কারণে কাউন্সিলরের সমর্থক আসুক, টিপুসহ কয়েকজন তাদের বাসায় এসে কাপড় ফেরত চায়। তখন জ্যোৎস্না বেগম কাপড় ফেরত দিতে বিলম্ব করলে তাকেসহ তার ছেলে এবং মেয়েকে তারা মারধর করে। মারধরের ঘটনা নিয়ে জ্যোৎস্না বেগম তাদেরকে বিচার- সালিশ ডাকার কথা বললে তারা আবারো ক্ষিপ্ত হয় তার পরিবারের উপর। এসময় জ্যোৎস্না বেগমের বাসার মেইন গেইট, আসবাপত্রসহ অন্যান্য জিনিষপত্র ভাংচুর করে এবং আবারো তাদেরকে মারধর করে। এসময় জ্যোৎস্না বেগম (৩৮), তার ছেলে রানা এবং মেয়ে মিথিলা আক্তার (৯) আহত হন।

জ্যোৎস্না বেগম আরো বলেন- আমি গরিব বলে অকারণে আমাকে এবং আমার ছেলে মেয়েকে তারা মারধর করল। কিউ বিচার না করলেও আল্লাহ এর বিচার করবেন।

এ ব্যাপারে কাউন্সিলর আবজাদ হোসেন আমজাদ এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন- যাকাতের কাপড় বিতরণকালে মহিলার সাথে ভুলবোঝাবুঝি হয়েছিল।

যা পরবর্তীতে প্রতিবেশীদের নিয়ে সেখানেই মীমাংশা করে দেওয়া হয়েছে। মহিলা যদি সমাধান না বুঝে তাহলে তো আমার কিছু করার নেই।

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

June 2018
S S M T W T F
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
30  

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares