সিলেটে আল-হারামাইন হাসপাতালের দখলে জনসাধারনের চলাচলের রাস্তা

প্রকাশিত: ৮:৩১ অপরাহ্ণ, মে ২৮, ২০১৮

সিলেটে আল-হারামাইন হাসপাতালের দখলে জনসাধারনের চলাচলের রাস্তা

ক্রাইম ডেস্ক : সরকারী রাস্তায় যানবাহন পাকিংএ বাধাঁ, প্রতিবন্ধকতার কারনে জনসাধারণ চলছে ফুটপাত এড়িয়ে সিলেটের আল-হারামাইন হাসপাতালের কারণে এই সড়কে চলাচলকারী পথচারীদের ভোগান্তীর সৃষ্টি হয়েছে। হাসপাতালের সামনে সরকারী ফুটপাতে প্লাষ্টিকের সড়ক বিভাজন ও কৃত্রিম ঘাষের কার্পেট লাগানোর কারনে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সাধারণ মানুষকে চলাচল করতে দেওয়া হচ্ছে না বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে ।

সিকিউরিটি গার্ডদের বাধাঁর কারনে সাধারণ মানুষকে তাই সড়কের উপর দিয়ে নিরাপত্তাহীনভাবে হেটে যেতে হচ্ছে। ফুটপাত থাকা সত্ত্বেও এভাবে সড়কের উপর হেটে চলায় অনেকে ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, এই হাসপাতাল চালু হওয়ার পর থেকে নানা কায়দায় ফুটপাত দখল করে রেখেছে তাঁরা। যার ফলে এই হাসপাতালের সামনে আসলেই আমাদের রাস্তার উপর দিয়ে হেটে যেতে হয়।

কাঁচাবাজারে আগত ব্যবসায়ী আব্দুর রব ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, সরকারী ফুটপাতের উপর কৃত্রিম ঘাষ লাগিয়েছে। এছাড়া সড়ক বিভাজন লাগিয়ে দিয়েছে ফুটপাতের উপর। এর উপর দিয়ে হেটে গেলেই সিকিউরিটি বাশিঁ বাজায়। নেমে যাওয়ার নির্দেশ দেয়।

সোমবার সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, সাদা পোষাকের সিকিউরিটি গার্ডরা হাসপাতালের সামনে কোন প্রকার যানবাহনকে দাঁড়াতে দিচ্ছেনা।

দুপুর তিনটার দিকে একটি মোটরসাইকেল এসে দাঁড়ায়। এসময় সিকিউরিটি গার্ডরা মোটরসাইকেল সরিয়ে নিতে বাশিঁ বাজায়। মোটরসাইকেলে বসা আরোহী তখন সিকিউরিটি গার্ডকে পাল্টা প্রশ্ন ছুড়ে দেয়- সড়কও তোমাদের কেনা নাকি?এ সময় গার্ড কোন কথা না শুনে বাশিঁ বাজাতেই থাকে।

দুপুর সারে তিনটার দিকে দেখা যায় ফুটপাত ব্যবহার না করে সড়কের উপর দিয়ে চলাচল করছে পথচারীরা ।

এ বিষয়ে কথা হয় আল-হারামাইন হাসপাতালের পরিচালক ডা: ফয়েজ আহমদ’র সাথে। ফুটপাতের উপর ঘাষের কার্পেট ও বিভাজন কেন রাখা হয়েছে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন,‘ আমি বিষয়টা কাল দেখবো। আজ তো বাসায় চলে এসেছি।

জনসাধারণকে ফুটপাত দিয়ে চলাচলে বাঁধা দেয়া হচ্ছে কেন এমন প্রশ্নের জবাবে বলেন,‘ এটি আমার জানা নেই।

এদিকে আল- হারামাইন হাসাপাতাল কর্তৃক ফুটপাতের প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি সম্পর্কে সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন ফুটপাত দিয়ে মানুষ চলাচল করবে কোন প্রতিষ্ঠানই ফুটপাত দখল করতে পারবেনা।

Sharing is caring!

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

May 2018
S S M T W T F
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031  

সর্বশেষ খবর

………………………..