বিশ্বনাথে আইপিএলকে ঘিরে  চলছে জুয়া: নিরব প্রশাসন

প্রকাশিত: ৩:৪২ অপরাহ্ণ, মে ২৪, ২০১৮

বিশ্বনাথে আইপিএলকে ঘিরে  চলছে জুয়া: নিরব প্রশাসন

Sharing is caring!

মো. আবুল কাশেম,বিশ্বনাথ থেকে :: ভারতে চলমান ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগকে (আইপিএল) ঘিরে সিলেটের বিশ্বনাথে চলছে জুয়া-বাজী।  বিশেষ করে উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের হাটবাজারে এই বাজী বা জুয়ার আগ্রাসনটা তুলনামূলক বেশী। উপজেলা সদরের কয়েকটি স্পটসহ বিভিন্ন হাটবাজারের চা স্টল, ফোনঘর ও অডিও-ভিডিও বেচাকেনা হয় এমন দোকানঘরে জুয়া-বাজী এখন ওপেন সিক্রেট। শুধু ম্যাচের ভাগ্য নির্ধারণ নিয়ে নয়, ওভার টু ওভার এমনকি বল টু বলেও চলছে বাজীধরা। এতে করে দিনকে দিন বিপদগামী হচ্ছে তরুণ-যুবকেরা। উদ্বিগ্নতা বাড়ছে অভিভাবকমহলে। তবে, আইপিএলকে ঘিরে এসব জুয়া-বাজী বন্ধে অনেকটাই নির্বিকার রয়েছে পুলিশ প্রশাসন।
উপজেলার বেশ কয়েকটি হাটবাজারের কয়েকজন দোকানী ও স্থানীয় লোকজনের সাথে কথা হলে তারা জানান, সন্ধ্যার পরে আইপিএলের খেলা দেখতে এসে অনেকেই গোপনে আবার অনেকেই প্রকাশ্যে বাজী ধরে থাকে। যা খুবই বিব্রতকর ও উদ্বেগজনক। এদেরকে নিষেধবাধা করলেও তাতে কর্ণপাত করে না।
বিশ্বনাথ সদরের নতুনবাজারের জনৈক ব্যবসায়ী বলেন, থানার অদূরে একটি ছোট দোকানে প্রতিদিন সন্ধ্যার পূর্ব থেকেই আনাগোনা শুরু হয় কতিপয় তরুণের। সন্ধ্যার পরপরই এরা আইপিএলের ম্যাচকে কেন্দ্র করে বাজী ধরা শুরু করে দেয়।
আবদুল হক নামে এক তরুণ তাদের স্থানীয় বাজারে জুয়া-বাজী প্রসঙ্গে বলেন, সন্ধ্যার পরে চা খেতে গেলে দেখি আইপিএলকে ঘিরে চলছে বাজীকরদের জমজমাট জুয়া। তবে, এই জুয়া-বাজী বন্ধে থানা পুলিশের কোনো তৎপরতা দেখতে না পেরে অবাকই হচ্ছি। আমি এ ব্যাপারে প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করছি।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক বাজীকরের সাথে কথা হয় এ প্রতিবেদকের। সে জানায়, প্রতিটি বলে, ওভারে বা ম্যাচের ভাগ্য নির্ধারণে ৫হাজার টাকা থেকে শুরু করে ৫০হাজার টাকাও বাজী ধরা হয়। যে কারণে প্রতিদিন মোটা অংকের টাকা লাভের আশায় তরুণেরা ঝোকে পড়ছে এই খেলায়।
একজন সমাজ সচেতন ব্যক্তি হিসেবে বিশ্বনাথ সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি সাইফুল ইসলাম বেগ বলেন, এ ধরণে জুয়া-বাজী সামাজিক ও চারিত্রিক উন্নতির পথে অন্তরায়। পাশাপাশি, ক্রিকেটপ্রেমি বাংলাদেশীদের জন্যেও উদ্বেগজনক। তরুণ ও যুবসমাজকে রক্ষায় এবং এদেশের স্বপ্নের ক্রিকেট অঙ্গনটিকে বাজীকরদের কালোহাত থেকে মুক্ত করতে পুলিশ প্রশাসন ও সচেতন মানুষজনকে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে।
এ বিষয়ে থানার ওসি শামসুদ্দোহা পিপিএম সাংবাদিকদের বলেন, আইপিএলকে ঘিরে বাজি বা জুয়ার ব্যাপারে আমাদের কাছে কেউ অভিযোগ করেনি। তবে, সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

May 2018
S S M T W T F
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031  

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares