গোয়াইনঘাটে অল্প দিনে যত খুন : থানা পুলিশ সাধারণ ঘটনায় টাকার জন্য খাই খাই

প্রকাশিত: ২:৩৪ অপরাহ্ণ, মে ২১, ২০১৮

Sharing is caring!

নিজস্ব প্রতিনিধি : সিলেটের গোয়াইনঘাটে আইনশৃংখলার চরম অবনতি। চলতি মাসে আলোচিত নুরুল হত্যা নিয়ে গোটা উপজেলা চাঞ্চল্য বিরাজ করছে। সাধারণ মানুষ নিরাপত্তাহীনতায় ভোগছে।

বিজ্ঞজনেরা বলেন, পুলিশ সাধারণ ঘটনায় টাকার জন্য খাই খাই করে অথচ ঘণ ঘণ মানুষ খুন, চুরি ডাকাতির ঘটনা ঘটছে। এতে তাদের কোন খবরদারী নাই গোয়াইনঘাট থানা পুলিশকে নিয়ে জনমনে প্রশ্ন থেকেই যায়, পুলিশ কি তাহলে দিনেই ডিউটি করে। রাতে কি তাহলে তাদের কোন কাজ নেই? খুনের ঘটনায় এলাকার সাধারণ মানুষের মনে ভয়ের কারণ হয়ে দেখা দিয়েছে। তাহলে কি বুঝা যায় খুনিরা গোয়াইনঘাটকে খুন করার নিাপদ স্থান হিসেবে বেছে নিয়েছে। আবার বার বার ডাকাতির ঘটনা এলাকায়ই ঘটেছে। এব্যাপারে গোয়াইনঘাটে সাধারণ মানুষ নিরাপত্তাহীনতায় ভোগছে।

চলতি মাসের গত ১৭মে সিলেটের গোয়াইনঘাট থানায় এ মামলা রেকর্ড করা হয়। এঘটনায় সিলেটের গোয়াইনঘাট-সহ সর্বত্র চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে । শুধু তাই নয়, নেপথ্যের কারন বদলিয়ে ভিন্নখাতে প্রবাহ করা হয়েছে হত্যাকান্ডের ঘটনা। ফুটবল খেলার জের ফরগনা বাজারে ূরবৃত্ততরে হামলায় নিহত হন নূরুল ইসলাম (২৬) মামলার হলেন বাদী ফখরুল ইসলাম। সালুটিকর বাজার মসজিদে জমিকে কেন্দ্রকরে বন্দুকের গুলিতে নিহত হন মিত্রী মহল গ্রামের রুমেল আহমদ ও আলী আহমদ মনাই এ মামলার বাদী হলেন আব্দু সোবাহান। বাড়ীর জমিকে কেন্দ্রকরে রুস্তমপুর ইউনিয়নের নয়াপাড়া গ্রামের শিব্বীর আহমদ নিহত হন ওই মামলার বাদী তার ভাই তারেক আহমদ। বোরো ধানের পানি দেয়াকে কেন্দ্র করে রুস্তমপুর ইউনিয়নের লামনি গ্রামের গিয়াস উদ্দিন (৪২) নিহত হন মামলার বাদী তার ছেলে ইব্রাহিম। খালসেচকে কেন্দ্রকরে আলীর গাও ইউনিয়নের বদরউদ্দিন নিহত হন বাদী তার ভাই আইয়ব আলী। হাসেধান খাওয়াকে কেন্দ্রকরে তোয়াকুল ইউনিয়নের পূর্ব পেকের খাল (লক্ষীনগর) গ্রামের ছয়ফুল আলম নিহত হন বাদী তার ভাই ফারুক আহমদ। গোয়াইনঘাটে গরু চরানোকে কেন্দ্র করে বাগান পাহারাদার খুন। এছাড়া বিছিন্ন ৪-৫ টি খুনের ঘটনা রয়েছে।
নূরুল ইসলাম হত্যার ঘটনায় পুলিশের ইপর থেকে সাধারণ মানুষের আস্থা ফিরে নিচ্ছে যার কারণ সৌদী আরবে অবস্থান করেও মামলার প্রধান আসামী হয়েছেন এক ব্যবসায়ী। গোলাম সারওয়ার ঘটনার ৩দিন আগে ১২মে ওমরাহ পালনে সৌদী আরবের মক্কা ও মদীনা শরীফে চরে যান এবং এখনো সেখানে অবস্থান করছেন। এ ছাড়াও গোলাম সারওয়ারের ছোটভাই চলমান ডিগ্রি পরীক্ষার্থী রাজীবকেও এ মামলায় আসামী করা হয়।

এ ঘটনায় গত রোববার (২০মে) সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি ও সিলেটের পুলিশ সুপারের কাছে দেয়া অভিযোগ থেকে মামলার চাঞ্চচল্যকর এ তথ্য পাওয়া গেছে। অভিযোগ করেছেন গোয়াইনঘাট উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আব্দুল হক।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

May 2018
S S M T W T F
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031  

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares