সিলেটে স্কুলছাত্র তাজিম নিখোঁজের ঘটনায় বিশাল মানববন্ধন

প্রকাশিত: ৯:০৫ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২৬, ২০১৮

সিলেট :: সিলেট নগরীর পাঠানটুলার গোয়াবাড়ি বিদ্যাসিড়ি স্কুলের ৮ম শ্রেণীর ছাত্র মেহদি হাসান তাজিম নিখোঁজের ঘটনায় গতকাল বৃহস্পতিবার স্থানীয় আল-মাদানি পরিষদ এর উদ্দ্যেগে পাঠানটুলা পয়েন্টে এক বিশাল মানববন্ধন অনুষ্টিত হয়েছে। মানববন্ধনে স্বত:র্স্ফুত ভাবে অংশ নেন স্থানীয় বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্টানের শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ স্থানীয় সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।বিকাল ২টার দিকে মানববন্ধন অনুষ্টিত হলে সেখানে একাত্বতা ঘোষণা করেন গোয়াবাড়ির বিদ্যাসিঁড়ি স্কুলের শিক্ষক- শিক্ষার্থীরা,চৌধুরী আমিনা আব্দুল বারী ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এন্ড কলেজ এর শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা, আইডিয়াল কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। সেখানে অংশ নেন বৈশাখি ক্রিড়া ও সমাজকল্যান সংস্থার ব্যানার নিয়ে আসেন স্থানীয় এলাকার গুণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।মানববন্ধনে উপস্তিত ছিলেন, মহানগর যুবলীগের আহবায়ক আলম খান মুক্তি, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের৭,৮ ও ৯ নং ওয়ার্ডের মহিলা কাউন্সিলার রেবেকা খানম রেনু। নয়াবাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি দেলোয়ার হোসেন জয়, গোয়াবাড়িস্থ বিল্ডিং নির্মাণ শ্রমিক কল্যানসংস্থার সভাপতি সৈয়দ মো.জাহাঙ্গির আলম, বিদ্যাসিঁড়ি স্কুলের প্রধান শিক্ষক সুমন আহমদ, আইডিয়াল কলেজের অধ্যাপক সামছুদ্দুহা, অধ্যাপক আবজাল সাদিক, বিদ্যাসিঁড়ি স্কুলের প্রতিষ্টাতা হাকিম মিয়া, বৈশাখি ক্রিড়া সংস্থার সভাপতি আনোয়ার হোসেন। আল মাদানি পরিষদ’র উপদেষ্টা কুতুব উদ্দিন শহীদি, সভাপতি হানিফুজ্জামান জসিম, সিনিয়র সভাপতি আরিফ সিকদার মামুন,সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মোমেন জুবের, প্রচার-সম্পাক মো.মামুনুর রশিদ, সমাজকল্যান সম্পাদক রাজু আহমদ, সদস্য আব্দুল মুহিত ফায়েক, মেহদি হাসান মুন্না, সাইফুল ইসলাম, নগরীর আম্বরখানার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী এহিয়া খান। মানববন্দনে অংশগ্রহণকারী বক্তরা বলেন, স্কুল ছাত্র তাজিম (১২) নিখোঁজের দুইমাস অতিবাহিত হয়েছে, পুলিশ তাজিমকে উদ্ধারসহ ঘটনার সাথে জড়িত কোন আসামীকে আজ পর্যন্ত গ্রেফতা করতে পারেনি। তারা প্রকৃত অপরাধীদের গ্রেফতার করতে তালবাহানা করছে। যার ফলে স্কুলছাত্র নিখোঁজ তাজিমকে উদ্ধার করা সম্ভব হচ্ছেনা। এসএমপির জালালাবাদ থানা পুলিশের অবহেলার কারণে তাজিম নিখোঁজ ঘটনার সন্ধিগ্ন আসামীরা প্রকাশ্য ঘরে বেড়াচ্ছে অথচ তাদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় নিয়ে এসে জিজ্ঞাসাবাদ করলে স্কুল ছাত্র নিখোঁজ তাজিমকে উদ্ধার করতে পারতো পুলিশ। কিন্তু পুলিশ তা করেনি। নিখোঁজ তাজিম এর পরিবার থেকে মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তার সাথে বারবার যোগাযোগ করলে কোন পাত্তাই দিচ্ছেন না এসআই সুজন। বরং এসআই সুজন ঘটনার সাথে জড়িত সন্ধিগ্ন আসামীদের রক্ষা করতে তৎপর রয়েছেন। উল্লেখ্য: গত ১৬ ফেব্রুয়ারী শুক্রবার জুম্মার নামাজের জন্য বাসা থেকে বের হয়ে আর বাসায় ফিরেনি আসেনি স্কুল ছাত্র মেহদি হাসান তাজিম। সে নগরীর পাঠানটুলা গোয়াবাড়ি কাটাটিল্লা গ্রামের দিনমজুর সাইদুল ইসলাম ও রোকেয়া বেগমের পুত্র ও স্থানীয় বিদ্যাসিঁড়ি স্কুলের ৮ম শ্রেণীর ‘খ’মেধাবী ছাত্র। এ ঘটনায় স্থানীয় এসএমপির জালালাবাদ থানায় প্রথমে জিডি ও পরে মামলা দায়ের করা হলে পুলিশ আজও নিখোঁজ তাজিমকে উদ্ধার করতে পারেনি। নিখোঁজের পর অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিরা বিভিন্ন নাম্বার থেকে তাজিমের পরিবারের সাথে যোগাযোগ করে তাদের কাছে তাজিম রয়েছে মর্মে। কিন্তু পুলিশি তৎপরতা না থাকায় আজ তাজিম নিখোঁজ রয়েছে।

Sharing is caring!

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..