নির্বাচনে অংশ না নিলে বিএনপির অস্থিত্ব থাকবে না : মোহাম্মদ নাসিম

প্রকাশিত: ৯:৫৫ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৪, ২০১৮

Sharing is caring!

নিজস্ব প্রতিনিধি : এবার নির্বাচনে অংশ না নিলে বিএনপির অস্থিত্ব থাকবে না বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম এমপি।
তিনি বলেন, সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন হবে। আগামী ডিসেম্বরেই জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে এবং তা বর্তমান সরকারের অধীনে হবে এর কোনো বিকল্প নেই।
রবিবার সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার চেচান গ্রামে ভারত সরকারের অর্থায়নে ৯ কোটি টাকা ব্যয়ে কমিউনিটি ক্লিনিকের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী উপরোক্ত কথাগুলো বলেছেন।
নাসিম আরো বলেন, আমরা সব সময় আদালতকে সম্মান করি আদালতের কাজে কখনো আওয়ামী লীগ হস্তক্ষেপ করে নাই। আমার নির্বাচিত সরকার হিসেবে আমাদের দ্বায়িত্ব পালন করে যাচ্ছি।
বেগম জিয়া বলেছেন, প্রশাসন তার সঙ্গে আছে, পুলিশ তার সঙ্গে আছে সেনাবাহিনী তার সঙ্গে আছে, সবই তো তার সঙ্গেই আছে। তাহলে তিনি নিরপেক্ষ সরকার চান কেন? মন্ত্রী তার দেয়া বক্তব্যে আরো বলেন বিচারপতি নিয়োগ বিষয়ে বিএনপির ইতিবাচক প্রতিক্রিয়ায় খুশি আওয়ামী লীগ ।
এর আগে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী সুনামগঞ্জের শিল্পনগরী ও প্রবাসী অধ্যুষ্যিত ছাতক উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ৫০ শয্যা বিশিস্ট ভবনের আনুষ্ঠানিক ভাবে শুভ উদ্ভোধন করেন। একই দিন উপজেলার দোলারবাজার ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র’র উদ্ভোধন করেন মন্ত্রী।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ও ভিওি প্রস্থর স্থাপন উপলক্ষ্যে উপজেলার দক্ষিণ খুরমা ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন মাঠে দুপুরে এক পৃথক সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম এমপি।
সমাবেশে ভারতীয় হাই কমিশনার শ্রী হর্ষবর্ধন শ্রিংলা, সুনামগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক এমপি, সুনামগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য ড. জয়াসেন গুপ্তা এমপি, সুনামগঞ্জ-৪ আসনের জাপার সংসদ সদস্য এ্যাডভোকেট পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ, স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী, বিগ্রেডিয়ার জেনারেল এম এ মোহী (পিএসসি), জেলা প্রশাসক মোঃ সাবিরুল ইসলাম, সিভিল সার্জন ডাঃ আশুতোষ দাশ ,পুলিশ সুপার জনাব মোঃ বরকতুল্লাহ খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।’
উল্ল্যেখ্য যে, ভারত সরকারের অর্থায়নে মোট নয় কোটি টাকা ব্যয়ে বাংলাদেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের পাঁচটি জেলা- সুনামগঞ্জ, হবিগঞ্জ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, জামালপুর এবং শেরপুরে ৩৬টি কমিউনিটি ক্লিনিক নির্মিত হবে। ইতোমধ্যেই ভারত সরকার প্রকল্পের কাজ শুরু করার জন্য সাড়ে চার কোটি টাকা দিয়েছে। দেশের প্রান্তিক জনগণকে চিকিৎসা সেবা পৌঁছে দিতে বাংলাদেশ সরকারের প্রচেষ্ঠায় সহায়তা করছে ভারত সরকার।
সমাবেশে শেষে ভারতীয় হাই কমিশনার গণমাধ্যকে বলেন, নির্মাণ কাজ শেষ হলে প্রতিটি কমিউনিটি ক্লিনিক প্রায় ছয় হাজার মানুষকে সেবা দেয়া সম্ভব। এই ক্লিনিকগুলো মাতৃ ও শিশু স্বাস্থ্য পরিসেবা গুলোকে গুরুত্ব দিয়ে প্রান্তিক মানুষের কাছে প্রাথমিক স্বাস্থ্য সেবা পৌঁছে দেবে।’

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

February 2018
S S M T W T F
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
2425262728  

সর্বশেষ খবর

………………………..

shares