কানাইঘাটে চাঞ্চল্যকর ভাতিজা হত্যা : ঘাতক চাচী গ্রেপ্তার

প্রকাশিত: 6:16 PM, January 29, 2018

কানাইঘাট প্রতিনিধি : সিলেটের কানাইঘাটে চাঞ্চল্যকর দেড় মাসের শিশু নাদিম আহমদ হত্যা মামলার পলাতক প্রধান আসামী তার আপন চাচীকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-৯।

শনিবার (২৭ জানুয়ারী) দিবাগত রাত ১টায় সিলেট নগরীর কদমতলী বাস টার্মিনাল এর হানিফ এন্টারপ্রাইজ কাউন্টারের সামনে থেকে ঘাতক চাচীকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃত চাচী হলেন- উপজেলার বড়চতুল গ্রামের তাজ উদ্দিনের স্ত্রী সুমানা বেগম (৩০) ও নিহত নাদিমের আপন চাচী। তিনি কানাইঘাট সদর ইউপির সোনাপুর গ্রামের আব্দুল ওয়াহিদের মেয়ে।

রোববার (২৮ জানুয়ারি) র‌্যাব-৯ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ও সিনিয়র সহকারি পরিচালক (মিডিয়া) মো. মনিরুজ্জামান প্রেরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-৯, সিপিসি-১, সিলেট ক্যাম্পের একটি আভিযানিক দল মেজর মো: শওকাতুল মোনায়েম এর নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে সিলেটের কদমতলী বাস টার্মিনাল থেকে ভাতিজা হত্যাকারী ঘাতক চাচীকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব-৯।

গ্রেপ্তারকৃত আসামীকে জেলার কানাইঘাট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে বলেও জানান মনিরুজ্জামান।

বামে নিহত শিশু নাদিমের মায়ের আহাজারি ডানে হাসোজ্বল খুন হওয়া নাদিম।

উল্লেখ্য, গত বছরের ২৬ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় নিজ বাড়ীতে উপজেলার বড়চতুল গ্রামের সৌদি প্রবাসী নজরুল ইসলামের দেড় মাসের শিশু সন্তান নাদিম আহমদের মুখে কীটনাশকজাতিয় বিষ ঢেলে দেওয়া হয়। মুমূর্ষ অবস্থায় শিশুকে তার মা ও স্বজনরা উপজেলায় স্বাস্থ কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে নাদিমকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক শিশুটিকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় পরদিন বুধবার রাত সাড়ে ১০টায় শিশুটির চাচী সুমানা বেগমকে একমাত্র আসামী করে কানাইঘাট থানায় একটি অভিযোগ দাখিল করেন শিশুটির মা সুমি বেগম।

পরে নজরবন্দী অবস্থায় ওইদিন গভীর রাতে খুনি সুমনা বেগম দুই শিশু সন্তানকে রেখে সিএনজি অটোরিকশা যোগে পালিয়ে যান। তাকে ধরতে পিছু থেকে ধাওয়া করেও ব্যর্থ হয় পুলিশ।

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

সর্বশেষ খবর

………………………..